১৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, সোমবার

Generic selectors
Exact matches only
Search in title
Search in content
Search in posts
Search in pages
Filter by Categories
Uncategorized
ইসলামী জীবন
ঔষধ ও চিকিৎসা
খাদ্য ও পুষ্টি
জানুন
নারীর স্বাস্থ্য
পুরুষের স্বাস্থ্য
ভিডিও
ভেসজ
যৌন স্বাস্থ্য
রান্না বান্না
লাইফ স্টাইল
শিশুর স্বাস্থ্য
সাতকাহন
স্বাস্থ্য ও সৌন্দর্য
স্বাস্থ্য খবর

প্রতিদিন কতটুকু চিনি খাবেন, অতিরিক্ত খেলে যেসব ক্ষতি

আপনি দিনে কত চামচ চিনি খান, তা কি কখনও হিসেব করে দেখেছেন? আসলে আমরা কেউই ভেবে দেখিনা যে, সারা দিনে আমরা কত চামচ চিনি খাই। অতিরিক্ত চিনি খাওয়ার ফলে হতে পারে নানান রকম সমস্যা।

‘আমেরিকান হার্ট অ্যাসোসিয়েশন’র রিপোর্ট অনুযায়ী, প্রতিদিন গড়ে প্রায় ২২ চামচ করে চিনি খাচ্ছে বিশ্ববাসী। ফলে বড় ধরনের বিপদের দিকে দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছি আমরা। কী কী ক্ষতি হতে পারে অতিরিক্ত চিনি খাওয়ার ফলে, দেখে নিন।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) জানাচ্ছে, প্রতিদিন ২৫ গ্রামের (৬ চামচ) বেশি চিনি খাওয়া আমাদের স্বাস্থ্যের পক্ষে মারাত্মক ক্ষতিকর! এর চেয়ে বেশি চিনি খেলে আমাদের শরীরে বাসা বাঁধতে পারে স্থুলতা, উচ্চ রক্তচাপ, হৃদরোগের মতো অসংক্রামক রোগ ব্যাধি। এছাড়া অকালে দাঁতের ক্ষয়, উদ্বেগ, অবসাদের মতো সমস্যাও বেড়ে যেতে পারে অত্যাধিক মাত্রায় চিনি খাওয়ার ফলে।

এই বিষয়গুলোর উপর ভিডিও বা স্বাস্থ্য বিষয়ক ভিডিও দেখতে চাইলে সাবস্ক্রাইব করে রাখুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটি ঠিকানা: – YouTube.com/HealthDoctorBD

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানাচ্ছে, প্রাপ্তবয়স্ক পুরুষের ক্ষেত্রে প্রতিদিন সর্বাধিক ৩৭.৫ গ্রাম (৯ চামচ) এবং নারীদের ক্ষেত্রে প্রতিদিন সর্বাধিক ২৫ গ্রামের (৬ চামচ) চিনি খাওয়া যায়।

অতিরিক্ত মাত্রায় চিনি খাওয়ার ফলে বাড়তে পাড়ে ব্লাড প্রেসার। শুনতে অবাক লাগলেও এটাই সত্যি! অতিরিক্ত চিনি খাওয়ার ফলে শরীরে ইনসুলিনের মাত্রা বেড়ে যায় যার ফলে বাড়তে পারে রক্তচাপ। পরবর্তীকালে এর থেকে বাড়তে পারে স্ট্রোকের ঝুঁকিও।

চিনি শরীরে প্রবেশ করে ফ্রুকটোজে পরিণত হয়ে যা লিভারে মেদ জমাতে প্রত্যক্ষ ভূমিকা নেয়। এমনকি রক্তেও ফ্যাটের পরিমাণ বাড়িয়ে দেয়। অতিরিক্ত চিনি খাওয়ার ফলে একটা সময়ের পর থেকে অবসাদে আক্রান্ত হতে পারেন। একটি গবেষণায় দেখা গিয়েছে যে, অতিরিক্ত চিনি খাওয়ার ফলে আমাদের মস্তিষ্কে ‘ডোপাইন’ নামের একটি হরমোনের ক্ষরণ কমে যায়। মানুষের সুখ, দুঃখ, আনন্দ, হাসি-কান্না ইত্যাদি অনুভুতি নিয়ন্ত্রিত হয় এই হরমোনের মাধ্যমে।

এছাড়াও আমরা সবাই জানি অতিরিক্ত চিনি খাওয়ার ফলে বেড়ে যায় সুগার। হৃদপিন্ডে চিনির পরিমাণ বেড়ে গেলে নানা রকম কার্ডিওভাসকুলার ডিজিজ দেখা যায়।

Comments

comments