১৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, সোমবার

Generic selectors
Exact matches only
Search in title
Search in content
Search in posts
Search in pages
Filter by Categories
Uncategorized
ইসলামী জীবন
ঔষধ ও চিকিৎসা
খাদ্য ও পুষ্টি
জানুন
নারীর স্বাস্থ্য
পুরুষের স্বাস্থ্য
ভিডিও
ভেসজ
যৌন স্বাস্থ্য
রান্না বান্না
লাইফ স্টাইল
শিশুর স্বাস্থ্য
সাতকাহন
স্বাস্থ্য ও সৌন্দর্য
স্বাস্থ্য খবর

শিরোনামঃ

শিরোনামঃ

ফিটনেস কর্মজীবী নারীদের ব্যায়াম

একটা সময় ছিল কাজের জন্য নারীদের এতটা বেশি বাইরে যেতে হতো না। কিন্তু সময় অনেক বদলেছে। কাজের জন্য আজকাল মেয়েদেরও অহরহ বাইরে যেতে হচ্ছে। বিশেষ করে যানজটযুক্ত শহরে দিনের বেশির ভাগ সময়ই তাদের অফিস আর পথে কেটে যায়। ফলে শরীরচর্চার খুব একটা সময় তারা পান না। সঠিক শরীরচর্চার অভাবে তাদের শারীরিক অনেক সমস্যার মুখোমুখি হতে হয়। অথচ একটু সচেতন হলে কর্মজীবী মহিলারা এসব সমস্যা থেকে মুক্ত থাকতে পারেন। সময়ের অভাবে যেসব কর্মজীবী মহিলা নিয়মিত শরীরচর্চা করতে পারেন না, তাঁদের জন্য কিছু শরীরচর্চার উপায় নিয়ে এ আলোচনা।

সারা দিন সক্রিয় থাকা
যতটা সম্ভব কথা ও কাজের মধ্যে থাকার চেষ্টা করতে হবে। কথা বলার সময় দাঁড়িয়ে কথা বলা, লেখা বা টাইপিংয়ের কাজ না থাকলে দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে কাজ করা যেতে পারে। লাঞ্চের সময় কিছুটা হাঁটা যেতে পারে। তা ছাড়া প্রতি আধা ঘণ্টা ব্যবধানে ডেস্ক ছেড়ে অন্তত এক মিনিটের জন্য হেঁটে নেওয়া স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী। এমন অনেক উপায় আছে, এখন অবস্থা বুঝে নিজেই শরীরচর্চার উপায়টা খুঁজে নিতে হবে।

পুষ্টিসমৃদ্ধ খাবার
দিনের বেশির ভাগ সময় হালকা খাবার খাওয়ার অভ্যাস থাকলে আজেবাজে জিনিস না খেয়ে স্বাস্থ্যসম্মত খাবার খাওয়া উচিত। এতে শরীর ক্ষতির হাত থেকে রেহাই পাবে। সুতরাং রোগের হাত থেকে বাঁচতে স্বাস্থ্যসম্মত খাবার খাওয়াতেই প্রাধান্য দেন।

এই বিষয়গুলোর উপর ভিডিও বা স্বাস্থ্য বিষয়ক ভিডিও দেখতে চাইলে সাবস্ক্রাইব করে রাখুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটি ঠিকানা: – YouTube.com/HealthDoctorBD

ফলপ্রসূ ব্যায়াম বেছে নেওয়া
আপনার সুবিধামতো কিছু ব্যায়াম করার চেষ্টা করুন। কম করে হলেও সপ্তাহে দুই দিন ২০ মিনিট করে ব্যায়াম করুন। হতে পারে সেটি দৌড় কিংবা হাঁটাহাঁটি। এতে অল্পতেই আপনার পূর্ণ শরীরে ব্যায়ামের কাজটা হয়ে যাবে।

স্বাস্থ্যসম্মত ব্রেকফাস্ট
স্বাস্থ্য ঠিক রাখার জন্য কর্মজীবী মহিলাদের স্বাস্থ্যসম্মত খাবারটা জরুরি। বিশেষ করে সকালের নাশতাটা হওয়া চাই ভালো। সকালের নাশতায় ফল রাখাটা জরুরি। তাজা ফলের পাশাপাশি এ সময় শুকনো ফলও খাওয়া যেতে পারে।

Comments

comments