২১শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, শুক্রবার

Generic selectors
Exact matches only
Search in title
Search in content
Post Type Selectors
Filter by Categories
Uncategorized
ইসলামী জীবন
ঔষধ ও চিকিৎসা
খাদ্য ও পুষ্টি
জানুন
নারীর স্বাস্থ্য
পুরুষের স্বাস্থ্য
ভিডিও
ভেসজ
যৌন স্বাস্থ্য
রান্না বান্না
লাইফ স্টাইল
শিশুর স্বাস্থ্য
সাতকাহন
স্বাস্থ্য ও সৌন্দর্য
স্বাস্থ্য খবর

যে কারণে বাড়ে ধূমপানে আসক্তি

উদ্বেগজনক হারে নতুন প্রজন্ম ধূমপানে আসক্ত হয়ে পড়ছে। জরিপে দেখা গেছে, বাংলাদেশে পুরুষের পাশাপাশি বেড়েছে নারী ধূমপায়ীর হারও। বিশেষ করে উঠতি বয়সী তরুণ-তরুণীরা ধূমপানে আসক্ত হয়ে পড়ছে। ধূমপান ত্যাগের ক্ষেত্রে সফলতার হার খুবই নগন্য বলা চলে।

ধূমপানে আসক্তির কারণ

সময় কাটানো
বর্তমানে শিশুদের খেলার মাঠ নেই বললে চলে। নেই সুস্থ বিনোদনের সুযোগ। কিন্তু পড়ালেখার পাশাপাশি তাদের শারীরিক ও মানসিক বিনোদনের তো প্রয়োজন। এখন খেলাধূলার ব্যবস্থা না থাকায় ছেলে-মেয়েরা আড্ডা, মোবাইল বা কম্পিউটার গেম, সিনেমা দেখা, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সময় পার করে দেয়। আর এই অলস আড্ডায় যে কখন সিগারেট এসে ঢুকে পড়ে তা হয়ত ওই কিশোর নিজেই বুঝতে পারে না।

এই বিষয়গুলোর উপর ভিডিও বা স্বাস্থ্য বিষয়ক ভিডিও দেখতে চাইলে সাবস্ক্রাইব করে রাখুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটি ঠিকানা: – YouTube.com/HealthDoctorBD

বাসা থেকে
যদি কেউ ছোটবেলা থেকে দেখে আসে যে তার বাবা অথবা মা ধূমপান করে, তার ধূমপান করতে কোন প্রকার দ্বিধাবোধ থাকে না। শুধু বাবা-মাই নয়, পরিবারের যেকোনো ব্যক্তির কাছ থেকে এটা আসতে পারে। অনেক সময় বাবার প্যাকেট থেকেও সিগারেট চুরি করতে পিছুপা হয় না সন্তান।

সাথে সাথে মৃত্যু হয় না
ধূমপানে মৃত্যু নিশ্চিত জেনেও মানুষ ধূমপান করেই যাচ্ছে। কিন্তু কেন? ধূমপান করার কারণে অসুস্থ হয়ে কতজন হাসপাতালে গেল সেই খোঁজ কে রাখে? আর অসুখ তো আর বলে দেয় না যে, রোগটা ধূমপানের কারণেই হয়েছে। আর যেহেতু তাৎক্ষণিক দৃশ্যমান ক্ষতি নেই, তাই ধূমপানকে তেমন কোন বিষয় মনে করছে না নতুন প্রজন্ম। জড়িয়ে পড়ছে ধূমপান চক্রে।

মানসিক চাপ
হতাশায় জর্জরিত হয়ে কিছু একটা খুঁজতে থাকে যা তাকে সঙ্গ দেবে। আর এই সময় কোন বিপজ্জনক বন্ধুর সংস্পর্শে সে ধূমপানের প্রতি আসক্ত হয়ে পড়ে। ধূমপানের মাধ্যমে নিজেকে মানসিক চাপ থেকে দূরে রাখতে চায়।

অল্প বয়স
সাধারণত অল্পবয়স্ক ছেলেমেয়েরা ধূমপানে বেশি আসক্ত হয়ে পড়ে। গবেষণায় দেখা গেছে যে, ২৫ বছরের উপরে সাধারণত খুব কম মানুষই এর প্রতি আসক্তি অনুভব করে। কৈশোর বয়সে ভাল-খারাপের ধারণা কয় জনেরই বা থাকে! আর এ সময় নিষিদ্ধ বিষয়ের প্রতি ঝোঁক থাকে সবচেয়ে বেশি।

বন্ধুদের পাল্লায়
ধূমপান না করা মানে সে এখনো বাচ্চাই থেকে গেছে। এছাড়াও ধূমপানে স্মার্টনেসের একটা ব্যাপার আছে বলে মনে করে অনেক টিনএজার। বেশির ভাগ কিশোর মনে করে যে ধূমপান করা স্মার্টনেস।

বিজ্ঞাপন, নাটক বা সিনেমা দেখে
বিভিন্ন বিজ্ঞাপন, নাটক এবং সিনেমাতে ধূমপানকে এমনভাবে প্রচার করা হয় যেন এটি খুবই স্বাভাবিক একটা কাজ। সিনেমার নায়ক যখন ধূমপান করছে আর শত শত ভিলেনকে মেরে তাড়িয়ে দিচ্ছে, তখন আপনার সন্তান নায়কের ভাল দিকগুলোর সাথে সাথে ধূমপান করাকেও স্বাভাবিক মনে করতে থাকবে।

শখ
বিভিন্ন সময় মানুষ শখের বসে ধূমপান করে। ধরুন আপনার বন্ধুদের মধ্যে সবাই সিগারেট খায় কিন্তু আপনি খান না। একদিন শখের বসে আপনি একটি সিগারেট খেয়েই দেখলেন। ভাবলেন ব্যাস। আর না। কিন্তু এতে আপনার যে বাধাটা ছিল সেটা কেটে যাবে। ফলে পরে এমন সুযোগ পেলেই তা হাতছাড়া করতে চাইবেন না।

ধুমপানে ক্ষতি
প্রথম দিকে সিগারেটের তিক্ত স্বাদ আপনাকে এরকমই বোধ করাবে। ভাববেন একটা খেলে কিছু হবে না। আর খাব না। কিন্তু নিকোটিনের প্রভাব আপনার শরীরে বিস্তার করা শুরু করবে। কিছুদিনের মধ্যেই আপনার আরও একটি সিগারেট খাওয়ার ইচ্ছা জাগ্রত হবে। ফলে ধূমপানের জন্য প্রতি মাসে একটা বাজেট তো রাখতেই হবে, পাশাপাশি হাসপাতালের জন্য কিছু জমা করা বাধ্যতামূলক হয়ে যাবে। কারণ, এটা শুধু আপনার ক্যান্সারের ঝুঁকিই বাড়াবে না, ব্লাডপ্রেসার, চোখের অসুখ, ডায়াবেটিকসহ নানা রোগ শরীরে বাসা বাঁধতে সুযোগ করে দেবে।

Comments

comments