২৮শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, শুক্রবার

Generic selectors
Exact matches only
Search in title
Search in content
Post Type Selectors
Filter by Categories
Uncategorized
ইসলামী জীবন
ঔষধ ও চিকিৎসা
খাদ্য ও পুষ্টি
জানুন
নারীর স্বাস্থ্য
পুরুষের স্বাস্থ্য
ভিডিও
ভেসজ
যৌন স্বাস্থ্য
রান্না বান্না
লাইফ স্টাইল
শিশুর স্বাস্থ্য
সাতকাহন
স্বাস্থ্য ও সৌন্দর্য
স্বাস্থ্য খবর

মানব মন জয় করার ১০ টিপস !!!

একজন মানুষের মন জয় করা খুব কঠিন কাজ। আপনি একজন স্মার্ট মানুষ, খুব ভাল এবং সকলেই আপনাকে খুব ভালবাসেন কিন্তু তাই বলে যে আপনি মানুষের মন জয়ে ওস্তাদ তা ভুল! একজন মানুষের মন জিতে নিতে হলে যেমন তাকে বোঝা দরকার ঠিক সেভাবেই কিছু কলা কৌশল জেনে নেয়া দরকার। আসুন জেনে নেই কিছু কৌশল-
* মনযোগী শ্রোতাঃ 
আপনার সঙ্গে যখন সে কথা বলছে তার কথা মন দিয়ে শুনুন। কারও মনে জায়গা পাওয়ার সেরা উপায় হল ভাল শ্রোতা হওয়া। কথা শুনে প্রয়োজন হলে প্রশ্ন করুন। ভাল লাগলে প্রশংসা করুন। পুরো কথাটা শুনে তারপর মন্তব্য করুন।
* চোখের আলাপনঃ
চোখের দিকে তাকিয়ে কথা বলুন। এতে কথার গুরুত্ব বাড়ে। শ্রোতার মনোযোগ বাড়ে। প্রকাশ্য সভায় বা মিটিংয়ে বক্তব্য রাখতে হলে চেষ্টা করুন একে একে সবার চোখের দিকে তাকিয়ে তাকিয়ে কথা বলার।
* একাগ্রচিত্তঃ
যখন সে আপনার কাছে তাঁর মনের কথা বা অভিব্যক্তি প্রকাশ করছে তখন অন্য কাজ করবেন না। এক মার্কিন বিশ্ববিদ্যালয়ের সাম্প্রতিক সমীক্ষা বলছে, অন্তত ৬৫ শতাংশ মানুষ কথা শোনার সময় মোবাইল বা ট্যাবের ব্যবহার করেন। কথা শোনার সময় অন্য কাজ করলে সামনের মানুষটার অবচেতন মনে আপনার সম্পর্কে খারাপ ধারনা হয়। এবং সে কষ্ট পেয়ে বসে।
* যুক্তি ও মনের সমন্নয়ঃ
যুক্তি দিয়ে ভাবুন। কিন্তু কথা বলার সময় মনকে বলতে দিন। দেখবেন সামনের মানুষটার কাছে গুরুত্ব পাবেন।
* বুদ্ধিমত্তা ও পরিবর্তনঃ
যখন কথা বলবেন ছোটখাটো পরিবর্তন আনুন এবং কাজটি করতে হবে খুব বুদ্ধিমত্তার সাথে। সামনের মানুষ যদি আপনার জানা কোন কথাই ফের বলে সেক্ষেত্রে ‘আমি জানি’ স্বাভাবিকভাবে না বলে তাঁর প্রশংসা করুন কিংবা সায় দিন। যেমন, ‘তুমি একদম ঠিক বলেছো’। এতে তাঁর মনে আপনার জায়গা করে নিতে সুবিধা হবে।
* দৃষ্টিকোণ বুঝার চেষ্টাঃ
কথা বলার সময় সামনের মানুষটার মত করে ভাবুন। চিন্তা করুন সামনের মানুষটার পরিপ্রেক্ষিতে আপনি কী বললে কথাটা ঠিক দিকে এগোয়। সে আপনার কথা বুঝতে পারছে কিনা? আসলে কথা বলারও একটা দাঁড়িপাল্লা থাকে। কখনই এমন কথা বলে দেবেন না যেন আপনার পাল্লাটা চট করে নিচে বা উপরে উঠে যায়। ভারসাম্য রাখুন।
* প্রশংসাঃ
মানুষটির প্রশংসা করুন এবং অবশ্যই মন থেকে। প্রশংসা খুব বিষম বস্তু। প্রশংসা অনেক সময় উলটে গিয়ে বিপরীত অর্থ দাড় করায়। এক্ষেত্রে ঠিক করে নিন প্রশংসা করার সময় শুধু মনের কথাই শুনবেন।
* শারীরিক ভাষা পরিবর্তনঃ
শরীরীভাষা একটা মানুষকে অনেক উপরে বা নিচে উঠিয়ে/নামিয়ে দিতে পারে। কারও সঙ্গে যখন কথা বলবেন তখন নিজের পা-হাতের দিকে খেয়াল রাখুন। ধরুন আড্ডার সময় হাত পা নেড়ে কথা বললে আড্ডা জমে। আবার প্রেমের সময় চোখের ওঠা নামাই সব কাজ করে দেয়। শরীরীভাষাটাকে পজিটিভ রাখুন দেখবেন লোকের মন জেতার কাজটা সহজ হবে।
* সর্বদা সায় মিলানোঃ
আমরা ভাবি মানুষের কথায় কথা মেলালেই বোধহয় প্রিয় থাকা যায়, কিন্তু পরিসংখ্যান বলে উল্টো ব্যাপার। সাধারণত মানুষ প্রশংসা শুনতে পছন্দ করলেও, প্রশংসার মাঝে তার খামতি ধরিয়ে দিলে সে সামনের মানুষটাকে আরও বেশি পছন্দ করে। সব সময় ‘হ্যাঁ-তে হ্যাঁ, না তে না’ বললে কথা খুব বেশি বাড়ে না।
* আলাপে ভিন্নতাঃ
সামনের মানুষটার সঙ্গে কথার মাঝে বা ওঠা বলার সময়ে কিছুটা ভিন্নতা আনুন। কথায় নতুনত্ব বা অন্যরকম কোন দৃষ্টিকোণ যোগ হলে শ্রোতার মনে আপনার জায়গা পাকা হয়ে যাবে। আসলে মানুষ নতুন কিছু শুনতে খুব ভালবাসে। সেই নতুনটা যদি আপনি দেন তাহলে লাভ আপনারই।

Comments

comments