৫ই শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, শুক্রবার

Generic selectors
Exact matches only
Search in title
Search in content
Search in posts
Search in pages
Filter by Categories
Uncategorized
ইসলামী জীবন
ঔষধ ও চিকিৎসা
খাদ্য ও পুষ্টি
জানুন
নারীর স্বাস্থ্য
পুরুষের স্বাস্থ্য
ভিডিও
ভেসজ
যৌন স্বাস্থ্য
রান্না বান্না
লাইফ স্টাইল
শিশুর স্বাস্থ্য
সাতকাহন
স্বাস্থ্য ও সৌন্দর্য
স্বাস্থ্য খবর

গরমে ঘর ঠান্ডা রাখবে ছয় গাছ

ঘর সাজাতে বাড়ছে গাছের কদর। বাড়িতে বিভিন্ন জায়গায় মানানসই গাছ থাকলে ঘরের পরিবেশ বেশ আরামদায়ক তো থাকেই, ঘরে কোণে বা বিছানার পাশে টেবিলের উপর বেশ সুন্দর নান্দনিক গাছ মন ভালো করে দেয়। গ্রীষ্মকালে ঘরকে অতি সহজে ঠান্ডাও রাখতে পারে গাছ। কারণ গাছ শ্বসন প্রক্রিয়া চলাকালীন বাতাসে অতিরিক্ত জল বাষ্প করে ছেড়ে দেয়। তাই এই গ্রীষ্মে আপনার বাড়িতে এই ৬ টি গাছ নিয়ে এসে ঘরকে করুন শীতল, মনকেও রাখুন ভালো।  চাইলে অফিসের ডেস্কেও রাখতে এই গাছগুলো। 

অ্যালোভেরা:

ত্বক ও চুলের বিশেষজ্ঞ হওয়ার পাশাপাশি এই বিশেষ গাছ পরিবেশ শান্ত করতেও খুব ভালো কাজ করে। অ্যালোভেরা (aloe vera) পাতায় পানির পরিমাণ প্রচুর। অ্যালোভেরা বাতাস পরিশোধন করার আদর্শ গাছ এবং এর রক্ষণাবেক্ষণও কম করতে হয়।

এই বিষয়গুলোর উপর ভিডিও বা স্বাস্থ্য বিষয়ক ভিডিও দেখতে চাইলে সাবস্ক্রাইব করে রাখুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটি ঠিকানা: – YouTube.com/HealthDoctorBD

শাশুড়ির জিহ্বা:

এই গাছের নামটাই একেবারে আলাদা। শাশুড়ির জিহ্বা (mother-in-law’s tongue) নামের অত্যন্ত অনন্য এই উদ্ভিদ আসলে বাতাস থেকে বিষাক্ত পদার্থ টেনে নেয় এবং বাতাসকে তাজা করে, অক্সিজেন এবং আর্দ্রতা বাড়ায়।

রাবার ফিগ:

রাবার ফিগ গাছটি বাতাস থেকে বিষাক্ত পদার্থ টেনে নেয় এবং তাপমাত্রার ভারসাম্য বাড়ায়।

অ্যারিকা পাম: 

অ্যারিকা পাম গাছের পাতার পৃষ্ঠভূমি বেশি যে কারণে এটি অক্সিজেন উৎপাদন বৃদ্ধি করে। সেই সাথে আপনার বাড়িতে উপযুক্ত গ্রীষ্মমন্ডলীয় স্পর্শ যোগ করতে হলে এই গাছের জুড়ি নেই।

ছোট বট জাতীয় গাছ:

ঘর সাজাতে বাড়ছে গাছের কদর। বাড়িতে বিভিন্ন জায়গায় মানানসই গাছ থাকলে ঘরের পরিবেশ বেশ আরামদায়ক তো থাকেই, ঘরে কোণে বা বিছানার পাশে টেবিলের উপর বেশ সুন্দর নান্দনিক গাছ মন ভালো করে দেয়। গ্রীষ্মকালে ঘরকে অতি সহজে ঠান্ডাও রাখতে পারে গাছ। কারণ গাছ শ্বসন প্রক্রিয়া চলাকালীন বাতাসে অতিরিক্ত জল বাষ্প করে ছেড়ে দেয়। তাই এই গ্রীষ্মে আপনার বাড়িতে এই ৬ টি গাছ নিয়ে এসে ঘরকে করুন শীতল, মনকেও রাখুন ভালো।  চাইলে অফিসের ডেস্কেও রাখতে এই গাছগুলো। 

অ্যালোভেরা:

ত্বক ও চুলের বিশেষজ্ঞ হওয়ার পাশাপাশি এই বিশেষ গাছ পরিবেশ শান্ত করতেও খুব ভালো কাজ করে। অ্যালোভেরা (aloe vera) পাতায় পানির পরিমাণ প্রচুর। অ্যালোভেরা বাতাস পরিশোধন করার আদর্শ গাছ এবং এর রক্ষণাবেক্ষণও কম করতে হয়।

শাশুড়ির জিহ্বা:

এই গাছের নামটাই একেবারে আলাদা। শাশুড়ির জিহ্বা (mother-in-law’s tongue) নামের অত্যন্ত অনন্য এই উদ্ভিদ আসলে বাতাস থেকে বিষাক্ত পদার্থ টেনে নেয় এবং বাতাসকে তাজা করে, অক্সিজেন এবং আর্দ্রতা বাড়ায়।

রাবার ফিগ:

রাবার ফিগ গাছটি বাতাস থেকে বিষাক্ত পদার্থ টেনে নেয় এবং তাপমাত্রার ভারসাম্য বাড়ায়।

অ্যারিকা পাম: 

অ্যারিকা পাম গাছের পাতার পৃষ্ঠভূমি বেশি যে কারণে এটি অক্সিজেন উৎপাদন বৃদ্ধি করে। সেই সাথে আপনার বাড়িতে উপযুক্ত গ্রীষ্মমন্ডলীয় স্পর্শ যোগ করতে হলে এই গাছের জুড়ি নেই।

ছোট বট জাতীয় গাছ:

বট উদ্ভিদ বায়ু শীতল এবং আর্দ্র রাখতে সাহায্য করে এবং এটি যেখানে স্থাপন করা হয় সেই পার্শ্ববর্তী এলাকায় আর্দ্রতার পরিমাণও বাড়ে।

মানি প্ল্যান্ট:

মানি প্ল্যান্ট হলো ঘরে রাখার জন্য সর্বকালীন জনপ্রিয় গাছ। এই গাছ সহজেই পাওয়া যায়। বিশেষ রক্ষণাবেক্ষণের প্রয়োজন নেই। বাংলাদেশের জলবায়ুতে অভ্যন্তরীণ কোনো স্থানকে শান্ত রাখার জন্য এটি বেশ ভালো।

বট উদ্ভিদ বায়ু শীতল এবং আর্দ্র রাখতে সাহায্য করে এবং এটি যেখানে স্থাপন করা হয় সেই পার্শ্ববর্তী এলাকায় আর্দ্রতার পরিমাণও বাড়ে।

মানি প্ল্যান্ট:

মানি প্ল্যান্ট হলো ঘরে রাখার জন্য সর্বকালীন জনপ্রিয় গাছ। এই গাছ সহজেই পাওয়া যায়। বিশেষ রক্ষণাবেক্ষণের প্রয়োজন নেই। বাংলাদেশের জলবায়ুতে অভ্যন্তরীণ কোনো স্থানকে শান্ত রাখার জন্য এটি বেশ ভালো।

Comments

comments