৫ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, রবিবার

Generic selectors
Exact matches only
Search in title
Search in content
Post Type Selectors
Filter by Categories
Uncategorized
আরও
ইসলামী জীবন
ঔষধ ও চিকিৎসা
খাদ্য ও পুষ্টি
জানুন
নারীর স্বাস্থ্য
পুরুষের স্বাস্থ্য
প্রচ্ছদ
ভিডিও
ভেসজ
যৌন স্বাস্থ্য
রান্না বান্না
লাইফ স্টাইল
শিশুর স্বাস্থ্য
সাতকাহন
স্বাস্থ্য ও সৌন্দর্য
স্বাস্থ্য খবর

করোনা থেকে সেরে ওঠার পর টুথব্রাশ পরিবর্তন জরুরি কেন? যা বলছেন বিশেষজ্ঞরা

করোনায় বিপর্যস্ত গোটা বিশ্ব। এরই মধ্যে একবার করোনা থেকে সেরে ওঠার পর আবারো আক্রান্ত হচ্ছে মানুষ। তবে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, কিছু বিষয় মেনে চললে দ্বিতীয়বার করোনায় আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা অনেকটা কমে যায়।

করোনা থেকে সুস্থ থাকার জন্য মুখের স্বাস্থ্যের ওপর জোর দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। যাদের এখনো করোনা হয়নি তাদেরও এ বিষয়টি মেনে চলা উচিত। চিকিৎসা বিশেষজ্ঞদের মতে করোনা থেকে সেরে ওঠার পরেও ব্রাশে জীবাণু থেকে যেতে পারে। এজন্যই করোনা থেকে সুস্থ হওয়ার পর ব্রাশ এবং জিহবা স্ক্র্যাপার পরিবর্তন করতে হবে। এতে করে শুধু ওই ব্যক্তির দ্বিতীয়বার করোনা হওয়ার সম্ভাবনা কমবে না সেই সাথে একই ওয়াশরুম যে বা যারা ব্যবহার করেন তাদেরও ঝুঁকি কমবে।

চিকিৎসকরা বলেছেন যে এটি অবশ্যই জরুরি কারণ দাঁত ব্রাশের সময় ব্যাকটিরিয়া/ ভাইরাসগুলো শ্বাসনালীর সংক্রমণের কারণ হতে পারে। হাতের কাছে মাউথওয়াশ না থাকলে হালকা গরম লবণ পানি দিয়ে কুলি করতে হবে। কিছু চিকিৎসক বলছেন, যারা ঠাণ্ডা, কাশি, সর্দি থেকে সেরে ওঠে তাদের ব্রাশ, স্ক্র্যাপার পরিবর্তন করা উচিত।

এই বিষয়গুলোর উপর ভিডিও বা স্বাস্থ্য বিষয়ক ভিডিও দেখতে চাইলে সাবস্ক্রাইব করে রাখুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটি ঠিকানা: – YouTube.com/HealthDoctorBD

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতামত
বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার দেওয়া তথ্যমতে, সংক্রমিত ব্যক্তির হাঁচি, কাশি, কথা বলা, হাসির মাধ্যমে ছোট ড্রপলেট থেকে ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ে। নিজের নাক, চোখ, মুখ হাত দিয়ে ধরার ক্ষেত্রেও নিষেধ করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। সেক্ষেত্রে ব্রাশ পরিবর্তন করাও মুখের স্বাস্থ্যের মধ্যেই পড়ে।

সতর্কতা
পরিবারের কেউ করোনা আক্রান্ত হলে অবশ্যই তার ব্যবহার্য ব্রাশ, স্ক্র্যাপার, তোয়ালে আলাদা করতে হবে। সেই সাথে করোনা রোগীকে নিজের ব্রাশ পরিষ্কার রাখতে হবে।  আর করোনা থেকে সুস্থ হলেই দ্রুত তা পরিবর্তন করতে হবে।

সূত্র : ডিএন ইন্ডিয়া

Comments

comments